সোমবার, ২০ মে, ২০২৪

জীববিজ্ঞান প্রথম পত্র (উদ্ভিদ বিজ্ঞান) : সপ্তম অধ্যায় (নগ্নবীজী ও আবৃতবীজী উদ্ভিদ) এর নোট : পর্ব-০১ (সৃজনশীল)

প্রশ্ন-নিচের উদ্দীপক দেখে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।

(i) উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র A ও B এর মধ্যকার পার্থক্য বর্ণনা কর।

ii) উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র A ও B যে পর্বের উদ্ভিদদের প্রতিনিধিত্ব করে তার বৈশিষ্ট্য লেখ।

(iii) উদ্দীপকে C ও D যে যে গোত্রের প্রতিনিধিত্ব করে তাদের শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য বর্ণনা কর।

(iv) উদ্দীপকে 'C' চিত্রধারী নমুনার পুষ্পপ্রতীক অংকনসহ ব্যাখ্যা কর।

(v) চিত্র A ও B বহনকারী উদ্ভিদের মূলের গঠন চিত্রসহ বর্ণনা কর।

(vi) চিত্র C ও D সংশ্লিষ্ট উদ্ভিদে গোত্রদ্বয়ের অর্থনৈতিক গুরুত্ব বিশ্লেষণ কর।

(vii) চিত্র A ও B বহনকারী উদ্ভিদের বৈশিষ্ট্য বর্ণনা কর।

(viii) উদ্দীপকের চিত্র A ও B যে উদ্ভিদগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব করে তার সাথে চিত্র-C ও D প্রতিনিধিত্বকারী উদ্ভিদগোষ্ঠীর মধ্যকার তুলনামূলক সম্পর্ক আলোচনা কর।

(ix) উদ্দীপকের C ও D দ্বারা নির্দেশিত গোত্র দুটির তুলনা কর।

 

উত্তর

(i) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র "A" ও "B" হল যথাক্রমে মাইক্রোস্পোরোফিল (পুংরেণুপত্র) এবং মেগাস্পোরোফিল (স্ত্রীরেণুপত্র)। নিম্নে মাইক্রোস্পোরোফিল ও মেগাস্পোরোফিলের মধ্যকার পার্থক্য বিশ্লেষণ করা হলো:

মাইক্রোস্পোরোফিল (পুংরেণুপত্র)

মেগাস্পোরোফিল (স্ত্রীরেণুপত্র)

১. এটি Cycas এর পুরুষ উদ্ভিদ-এর মাথায় অসংখ্য উৎপন্ন হয়।

১. Cycas -এর স্ত্রী উদ্ভিদের মাথায় মেগাস্পোরোফিল উৎপন্ন হয়।

২. মাইক্রোস্পোরোফিল একত্রিত হয়ে একটি মোচাকৃতির পুং স্ট্রোবিলাস তৈরি করে।

২. মেগাস্পোরোফিলগুলো ঢিলাভাবে সজ্জিত থাকে।

৩. এর পৃষ্ঠদেশে বহু স্পোরাঞ্জিয়া তৈরি করে।

৩. এর কিনারে ডিম্বক সৃষ্টি হয়।

৪. ২-৫টি স্পোরাঞ্জিয়া একত্রে অবস্থান করে সোরাস গঠন করে।

৪. সোরাস গঠন করে না।

৫. স্পোরাঞ্জিয়ামের ভিতরে স্পোর মাতৃকোষ সৃষ্টি হয়।

৫. ডিম্বকের ভেতরে স্ত্রীরেণু মাতৃকোষ সৃষ্টি হয়।

৬. এর ভিতরে মায়োসিস বিভাজনের মাধ্যমে হ্যাপ্লয়েড পুং রেণু উৎপন্ন হয়।

৬. ডিম্বকের ভিতরে স্ত্রী রেণু মাতৃকোষ মিয়োসিস বিভাজনের মাধ্যমে হ্যাপ্লয়েড স্ত্রীরেণু উৎপন্ন হয়।

 

(ii) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র 'A' ও 'B' হল মাইক্রোস্পোরোফিল বা পুংরেণুপত্র এবং মেগাস্পোরোফিল বা স্ত্রীরেণুপত্র যা নগ্নবীজী উদ্ভিদকে প্রতিনিধিত্ব করে। নিম্নে নগ্নবীজী উদ্ভিদের বৈশিষ্ট্যসমূহ বর্ণনা করা হলো:

 

১. উদ্ভিদ বহুবর্ষজীবী, চিরসবুজ, স্পোরোফাইট, অসমরেণুপ্রসূ অর্থাৎ মাইক্রোস্পোর ও মেগাস্পোর (পুং ও স্ত্রী লিঙ্গধর উদ্ভিদ) তৈরি করে।

২. রেণুপত্র অর্থাৎ স্পোরোফিলগুলো ঘনভাবে সন্নিবেশিত হয়ে স্ট্রোবিলাস বা কোন তৈরি করে।

৩. মেগাস্পোরোফিল-এ (স্ত্রীরেণুপত্র) কোনো গর্ভাশয় তৈরি হয় না অর্থাৎ এদের গর্ভাশয়, গর্ভদণ্ড ও গর্ভমুণ্ড নেই। এর ফলে পরাগায়নকালে পরাগরেণু সরাসরি ডিম্বক রন্দ্রে পতিত হয়।

৪. ডিম্বক মেগাস্পোরোফিলের কিনারে নগ্ন অবস্থায় থাকে।

৫. গর্ভাশয় নেই তাই এদের কোনো ফল সৃষ্টি হয় না।

৬. ফল সৃষ্টি হয় না বলে বীজ নগ্ন অবস্থায় থাকে।

৭. নগ্নবীজী উদ্ভিদে দ্বিনিষেক ঘটে না (ব্যতিক্রম Ephedra), তাই শস্য হ্যাপ্লয়েড এবং নিষেকের পূর্বে সৃষ্টি হয়।

৯. সকলেই বায়ু পরাণী।

৮. জাইলেম টিস্যুতে সত্যিকার ভেসেল কোষ থাকে না (ব্যতিক্রম Gnetum) এবং ফ্লোয়েম টিস্যুতে সঙ্গীকোষ থাকে না।

১০. জীবনচক্রে অসম আকৃতির জনুঃক্রম বিদ্যমান।

১১. সাধারণত আর্কিগোনিয়া সৃষ্টি হয়।

 

(iii) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র-C হলো অক্ষীয় অমরাবিন্যাস যা Malvaceae গোত্রের বৈশিষ্ট্য। নিম্নে Malvaceae গোত্রের শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্যগুলো বর্ণনা করা হলো-

১। উদ্ভিদের কচি অংশ রোমশ ও মিউসিলেজপূর্ণ (পিচ্ছিল পদার্থযুক্ত)।

২। উপপত্র মুক্তপার্শ্বীয়।

৩। পুষ্প একক এবং সাধারণত উপবৃতিযুক্ত।

৪। পুংকেশর বহু, একগুচ্ছক, পুংকেশরীয় নালিকা গর্ভদণ্ডের চারদিকে বেষ্টিত।

৫। পরাগধানী একপ্রকোষ্ঠী (এককোষী নয়) ও বৃক্কাকার।

৬। পরাগরেণু বৃহৎ এবং কণ্টকিত।

৭। অমরাবিন্যাস অক্ষীয় (axile)।

৮। দলমণ্ডল টুইস্টেড (পাকানো)।

উদ্দীপকের চিত্র-D একটি গর্ভপত্র যার গর্ভাশয় এক প্রকোষ্ঠবিশিষ্ট এবং গর্ভমুণ্ড বা স্ত্রীকেশর পালকের ন্যায়। অতএব, এটি Poaceae গোত্রকে প্রতিনিধিত্ব করে। নিম্নে Poaceace গোত্রের শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করা হলো-

১। কান্ড পর্ব ও পর্বমধ্যে বিভক্ত, মধ্যপর্ব ফাঁপা, কান্ড নলাকার।

২। পত্রমূল কাণ্ডবেষ্টক এবং পাতা লিগিউলবিশিষ্ট।

৩। পুষ্পবিন্যাস স্পাইকলেট।

৪। পরাগধানী সর্বমুখ (versatile)।

৫। গর্ভমুন্ড পালকের ন্যায়।

৬। ফল ক্যারিওপসিস।

৭। গর্ভাশয় একপ্রকোষ্ঠবিশিষ্ট।

৮। অমরাবিন্যাস মূলীয় (basal)।

 

(iv) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকের 'C' চিত্রটি হল অক্ষীয় অমরাবিন্যাস। অতএব, নমুনা 'C' Malvaceae গোত্রের অন্তর্গত জবা ফুলকে প্রতিনিধিত্ব করে। নিম্নে জবা ফুলের পুষ্পপ্রতীক অংকনসহ ব্যাখ্যা করা হলো:
চিত্র: জবা ফুলের পুষ্প প্রতীক (গোত্র Malvaceae)



জবা পুষ্পের পুষ্প সংকেত: উবৃ বৃ  পুং(α) (৫)

জবা ফুলের পুষ্প প্রতীকের ব্যাখ্যা: পুষ্প প্রতীক থেকে প্রতীয়মান হয়-

  • ফুলটি বহুপ্রতিসম এবং উভলিঙ্গ;
  • উপবৃতিতে উপবৃত্যংশ ৫টি, মুক্ত, বৃতিতে বৃত্যংশ ৫টি, সংযুক্ত, পুষ্পপত্রবিন্যাস প্রান্তস্পর্শী (ভালভেট);
  • দলমণ্ডলে পাপড়ি ৫টি, নিচের দিকে সামান্য যুক্ত, পুষ্পপত্রবিন্যাস পাকানো (টুইস্টেড);
  • পুংস্তবকে পুংকেশর বহু, একগুচ্ছক, সকল পুংদণ্ড একক নলে যুক্ত, পরাগধানী মুক্ত;
  • স্ত্রীস্তবকে গর্ভপত্র ৫টি, সংযুক্ত, গর্ভাশয় পাঁচ প্রকোষ্ঠবিশিষ্ট, অধিগর্ভ, অমরাবিন্যাস অক্ষীয়।

 

(v) নং প্রশ্নের উত্তর 

চিত্র: Cycas-এর কোরালয়েড মূল

উদ্দীপকের চিত্র-A ও B বহনকারী উদ্ভিদ হলো Cycas যা একটি নগ্নবীজী উদ্ভিদ। Cycas উদ্ভিদে এক বিশেষ ধরনের মূল দেখা যায়, এদেরকে কোরালয়েড মূল বলে। নিম্নে কোরালয়েড মূলের চিত্রসহ গঠন বর্ণনা করা হলো:

প্রাথমিক পর্যায়ে Cycas-এর প্রধান মূল থাকে। তবে এটি স্বল্পস্থায়ী কারণ অল্পকাল পরেই প্রধান মূল নষ্ট হয়ে যায়। পরে সেখানে অস্থানিক মূল সৃষ্টি হয়। অস্থানিক মূল কখনো কখনো মাটির ঠিক নিচে বৃদ্ধি পায়। সেখানে ভূমিতলের উপর অসংখ্য খাটো খাটো দ্ব্যাগ্র শাখার সৃষ্টি করে। ভূমির উপরিতলে দ্ব্যাগ্র শাখাবিশিষ্ট এ সফল মূল এক প্রকার ব্যাকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হয়। মূলের মধ্যে ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধির সাথে সাথে Nostoc, Anabaena নামক সায়ানোব্যাকটেরিয়া দ্বারাও আক্রান্ত হয়। ফলে আক্রান্ত মূলগুলো স্বাভাবিক সরু না হয়ে বিকৃত আকৃতি ধারণ করে। সে কারণে মূলগুলো সামুদ্রিক প্রবাল বা কোরালের মতো দেখায়। এমন মূলকে কোরালয়েড মূল বা রুট টিউবারকল বলে।

 

(vi) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকে 'C' ও 'D' সংশ্লিষ্ট উদ্ভিদ গোত্রদ্বয় যথাক্রমে: Malvaceae এবং Poaceae। অর্থনৈতিক দিক থেকে এই গোত্রদ্বয়ের গুরুত্ব সর্বাধিক। নিম্নে Malvaceae ও Poaceae গোত্রের অর্থনৈতিক গুরুত্ব বর্ণনা করা হলো:

Malvaceae গোত্রের অর্থনৈতিক গুরুত্ব: বস্ত্রশিল্পের প্রধান উপাদান কার্পাস তুলা এ গোত্রের Gossypium গণের বিভিন্ন প্রজাতি হতে সংগ্রহ করা হয়। এ গোত্রের কেনাফ ও মেস্তাপাট হতেও গুরুত্বপূর্ণ তন্তু পাওয়া যায়। ঢেঁড়স একটি উৎকৃষ্ট সবজি। জবা, স্থলপদ্ম ঝুমকা জবা, হলিহক প্রভৃতি বাগানের অলঙ্কৃত উদ্ভিদ। ইন্ডিয়ান টিউলিপ (Thespesia populnea)-এর কাষ্ঠ থেকে পেন্সিল, খেলনা ও কৃষি কাজের উপকরণ তৈরি হয়। জবা বিভিন্ন প্রকার ওষুধে কাজে লাগে। এটি পূজার উপকরণ হিসেবে কাজে লাগে।

Poaceae গোত্রের অর্থনৈতিক গুরুত্ব:

১। খাদ্যেৎপাদন: ঘাস জাতীয় উদ্ভিদের মানুষের ভক্ষণযোগ্য বীজকে শস্য বা সেরিয়াল (Cereal) বলে। ধান, গম, ভুট্টা, বার্লি মানুষের প্রধান শস্য খাদ্য। ইক্ষু জাতীয় উদ্ভিদ থেকে চিনি উৎপাদিত হয় যা মানুষের শর্করার অন্যতম যোগানদাতা। মানুষ ছাড়াও তৃণভোজী অধিকাংশ প্রাণীর খাদ্যের প্রধান উৎস হলো Poaceae গোত্রের ঘাস উদ্ভিদ।

২। শিল্পোৎপাদন: বাঁশ, ঘাস, আখের ছোবড়া দিয়ে কাগজ উৎপাদন করা হয়। এছাড়া বাঁশ দ্বারা ফার্নিচার তৈরি হয়। গৃহ নির্মাণ সামগ্রীর যোগান দিয়ে থাকে

ছন, ইকড়, কাশ ইত্যাদি উদ্ভিদ। প্রাত্যহিক ঘরবাড়ি ঝাড় দিতেও প্রয়োজন পড়ে এই গোত্রের উদ্ভিদের।

৩। গৃহ নির্মাণ সামগ্রী ও জ্বালানীর উৎস: বাঁশ মানুষের গৃহনির্মাণ সমগ্রীর অন্যতম উপাদান। আধুনিক ইমারত নির্মাণের সেন্টারিংয়ের কাজে বাঁশ ব্যবহৃত হয়। বিভিন্ন প্রজাতির ঘাস ও বাঁশ গ্রামীণ জ্বালানির অন্যতম উৎস।

৪। সৌখিন বাগান তৈরিতে: সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে বাগানের লনে বিভিন্ন প্রজাতির ঘাসকে সৌখিন উদ্ভিদ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

 

(vii) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকের চিত্র-A ও B বহনকারী উদ্ভিদ হলো Cycas যা একটি নগ্নবীজী উদ্ভিদ। নিচে Cycas এর বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করা হলো-

১। Cycas উদ্ভিদ স্পোরোফাইট। দেহ মূল, কাণ্ড ও পাতায় বিভক্ত।

২। উদ্ভিদ খাড়া পাম জাতীয়।

৩। পাতা বৃহৎ, পক্ষল যৌগিক, কাণ্ডের মাথায় দিকে সর্পিলাকারে সজ্জিত।

৪। কচি পাতা ভার্নেশন সারসিনেট (কুণ্ডলিত)

৫। পাতায় ট্রান্সফিউশন টিস্যু বিদ্যমান।

৬। অস্থানিক কোরালয়েড মূল বিদ্যমান।

৭। গর্ভাশয় না থাকায় এদের ফল সৃষ্টি হয় না, বীজ নগ্ন অবস্থায় থাকে।

৮। পুংরেণুপত্রগুলো একত্রিত হয়ে স্ট্রোবিলাস গঠন করে কিন্তু স্ত্রীরেণুপত্র সত্যিকার স্ট্রোবিলাস গঠন করে না।

৯। হেটারোস্পোরিক অর্থাৎ যৌন জননে মেগা ও মাইক্রোসস্পোর সৃষ্টি হয়।

১০। বাতাসের মাধ্যমে পরাগায়ন ঘটে।

 

(viii) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকের 'A' চিত্রটি হল একটি মাইক্রোস্পোরোফিল (পুংরেণুপত্র) এবং 'B' চিত্রটি হল একটি মেগাস্পোরোফিল (স্ত্রীরেণুপত্র) যা নগ্নবীজী উদ্ভিদকে প্রতিনিধিত্ব করে। আবার, নমুনা 'C' অক্ষীয় অমরাবিন্যাস দ্বারা দ্বিবীজপত্রী উদ্ভিদকে এবং নমুনা 'D' এক প্রকোষ্ঠ গর্ভাশয় ও পালকের ন্যায় গর্ভমুন্ড দ্বারা একবীজপত্রী উদ্ভিদকে প্রতিনিধিত্ব করে, যা মূলত আবৃতবীজী উদ্ভিদ। সুতরাং আলোচ্য উদ্ভিদগোষ্ঠী হলো নগ্নবীজী ও আবৃতবীজী উদ্ভিদ। নিম্নে নগ্নবীজী ও আবৃতবীজী উদ্ভিদের মধ্যকার তুলনামূলক আলোচনা করা হলো:

  1. নগ্নবীজী উদ্ভিদের ফুলে গর্ভাশয় ও গর্ভদণ্ড নেই। গর্ভাশয় না থাকায় ফল উৎপন্ন হয় না, তাই বীজ নগ্ন অবস্থায় থাকে। অপরদিকে আবৃতবীজী উদ্ভিদের ফুলে গর্ভাশয় আছে এবং গর্ভাশয় ফলে পরিণত হয়। ফল হয় তাই বীজ ফলের ভেতরে থাকে।
  2. নগ্নবীজী উদ্ভিদে আর্কিগোনিয়া সৃষ্টি হয় কিন্তু আবৃতবীজী উদ্ভিদে আর্কিগোনিয়া সৃষ্টি হয় না।
  3. নগ্নবীজী উদ্ভিদে পরাগায়নের সময় পরাগরেণু সরাসরি ডিম্বক রন্ধ্রে পতিত হয়। অন্যদিকে আবৃতবীজী উদ্ভিদের ক্ষেত্রে পরাগরেণু গর্ভমুণ্ডে পতিত হয়।
  4. নগ্নবীজী উদ্ভিদের সাধারণত দ্বি-নিষেক ঘটে না। কিন্তু আবৃতবীজী উদ্ভিদে দ্বি-নিষেক ঘটে।
  5. নগ্নবীজী উদ্ভিদে এন্ডোস্পোর্ম হ্যাপ্লয়েড (n) এবং নিষেকের পূর্বে উৎপন্ন হয়। অপরপক্ষে দ্বিবীজপত্রী উদ্ভিদে এন্ডোস্পার্ম ট্রিপ্লয়েড (3n) । নিষেকের পরে উৎপন্ন হয়।
  6. নগ্নবীজী উদ্ভিদের জাইলেমে সুগঠিত ভেসেল কোষ এবং ফ্লোয়েমে সঙ্গীকোষ নেই। কিন্তু আবৃতবীজী উদ্ভিদের জাইলেমে সুগঠিত ভেসেল কোষ এবং ফ্লোয়েমে সঙ্গীকোষ থাকে।
  7. নগ্নবীজী উদ্ভিদের পরাগায়নের মাধ্যম বায়ু। অন্যদিকে আবৃতবীজী উদ্ভিদের পরাগায়নের মাধ্যমগুলো হলো: বায়ু, পানি, প্রাণী ও কীটপতঙ্গ।

 

(ix) নং প্রশ্নের উত্তর

উদ্দীপকের চিত্র 'C' ও 'D' দ্বারা নির্দেশিত গোত্রদ্বয় হলো যথা: Malvaceae এবং Poaceae। নিচে Poaceae এবং Malvaceae গোত্র দুটির তুলনামূলক আলোচনা করা হলো:

১। Malvaceae গোত্রের উদ্ভিদ দ্বিবীজপত্রী, কিন্তু Poaceae গোত্রের উদ্ভিদ একবীজপত্রী।

২। Malvaceae গোত্রের উদ্ভিদের কচি কাণ্ডে বা ফুলে মিউসিলেজ উপস্থিত। Poaceae উদ্ভিদে মিউসিলেজ অনুপস্থিত। 

৩। Malvaceae গোত্রের উদ্ভিদে প্রধান মূল দেখা গেলেও Poaceae গোত্রে প্রধান মূলের পরিবর্তে গুচ্ছমূল থাকে।

৪। Malvaceae গোত্রের পাতার শিরাবিন্যাস জালিকাকার, কিন্তু Poaceae গোত্রে শিরাবিন্যাস সমান্তরাল।

৫। Malvaceae গোত্রের সাইমোস প্রকৃতির পুষ্পবিন্যাস দেখা যায়, যেখানে Poaceae গোত্রের পুষ্পবিন্যাস স্পাইকলেট প্রকৃতির।

৬। Malvaceae গোত্রের পুষ্পে বৃতি ও দল আলাদাভাবে দেখা যায়, কিন্তু Poaceae তে আলাদা করা যায় না। এক্ষেত্রে এদের বলা হয় পুষ্পপুট।

৭। Malvaceae গোত্রের সাধারণত ৫টি গর্ভপত্র এবং ৫টি গর্ভমুণ্ড দেখা যায়, কিন্তু Poaceae তে ১টি গর্ভপত্র ও ২টি গর্ভমুণ্ড দেখা যায়।

৮। Malvaceae গোত্রের অমরাবিন্যাস অক্ষীয় (Axile), পক্ষান্তরে Poaceae গোত্রের অমরাবিন্যাস মূলীয় (Basal)।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

জীববিজ্ঞান প্রথম পত্র (উদ্ভিদ বিজ্ঞান) : সপ্তম অধ্যায় (নগ্নবীজী ও আবৃতবীজী উদ্ভিদ) এর নোট : পর্ব-০১ (সৃজনশীল)

প্রশ্ন-নিচের উদ্দীপক দেখে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও। (i) উদ্দীপকে উল্লিখিত চিত্র A ও B এর মধ্যকার পার্থক্য বর্ণনা কর। ...